দুই নারী তৌফদা গোষ্ঠীর বোর্ডে নিযুক্ত

তথ্য ছড়িয়ে দিন

সময়ঃ ০৫ অগাস্ট, ২০১৮ 

 জেদ্দাহ – হজ্জ ও ওমরা মন্ত্রী মাহমুদ সালেহ বেনতান দক্ষিণ এশিয়ার তীর্থযাত্রীদের জন্য তৌফদা সংস্থার বোর্ড অব ডিরেক্টর্স হিসাবে দুই সৌদি নারীর নিয়োগের একটি সিদ্ধান্ত জারি করেন।

এই সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে নারীদের স্বজনদের নওয়াজ হায়দার জামাল আল-লাইল এবং হানাদি আব্দুল কাদের রমাদানকে বোর্ডে তাদের পদ গ্রহণ করা হয়েছে।

হজ্জ ও ওমরার উপমন্ত্রী আবদুল ফাত্তাহ সুলেইমান মাশশত বলেছেন, এই সিদ্ধান্তটি ছিল আল্লাহর বান্দাদের সেবায় নারী বিদ্রোহীদের উত্সাহিত করার লক্ষ্যে। “এটি রাজ্যের দৃষ্টি ২০৩০-এর মধ্যেই ছিল, যা সমস্ত সেবা ক্ষেত্রের নারীদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করে”।

বোর্ডের চেয়ারম্যান রাফাত বদর বলেন, দুই নারী এই পেশায় অচেনা নয়, কারণ তারা উভয়ই বহুবছর ধরে তীর্থযাত্রীদের সেবা করত।

তিনি বলেন, রমজানালকে সাধারণ বিষয়গুলির দায়িত্বে রাখা হয়েছিল এবং জামাল আল-লাইলকে নারী স্বেচ্ছাসেবীদের বিষয়ে দায়িত্ব অর্পণ করা হয়েছিল।

সৌদি প্রেস এজেন্সি (এসপিএ) শনিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। গত ১৪ জুলাই শুরু হওয়া সফর থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ৬৬২০৫১ হজ্জ তীর্থযাত্রী বিদেশে যাত্রা করে।

সংস্থা জানায়, মক্কা ও মদীনার পবিত্র শহরে তীর্থযাত্রীদের সংখ্যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৩৯৭১৪ তীর্থযাত্রীদের চেয়ে প্রায় ৬ শতাংশ বেশি।

পাসপোর্ট কর্তৃপক্ষের মতে, জেদ্দায় কিং আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও মদীনাতে প্রিন্স মুহাম্মদ বিন আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে মোট ৬৪৭০৮৭ জন যাত্রীর আগমন হয়।

এটি ৭৯৬৯ তীর্থযাত্রী স্থলপথে, ৬৯৯৫ জন সমুদ্রপথে দ্বারা কিংডম এ এসেছে।

এদিকে, সিভিল ডিফেন্স জেনারেল সুলাইমান আল-আমর বলেন, এ বছর হজ্জের সময় তীর্থযাত্রীদের মুখোমুখি হতে পারে এমন সব ধরনের সম্ভাব্য ঝুঁকির সাথে ব্যক্তিগত ও আধিকারিকদের ১৮ হাজার কর্মী জড়িত থাকবে।

তিনি আরও বলেন, উদ্ধার অভিযান চালানোর জন্য ৩০০ টিরও বেশি সরঞ্জামের মাধ্যমে বাহিনীকে সমর্থন করা হচ্ছে।

“সিভিল ডিফেন্স ইতিমধ্যে মক্কা, মদীনা এবং পবিত্র স্থানে তার কাজ শুরু করেছে এবং ঈশ্বরের অতিথিদের নিরাপত্তা ও কল্যাণ সংরক্ষণের সমস্ত পদক্ষেপ নিয়েছে”।

স্থানীয় হাজী সংস্থাগুলি ২ হাজার পুরুষ নিরাপত্তা রক্ষী এবং ২000 মহিলা গার্ড রক্ষণাবেক্ষণ করেছে যাতে মীন ও আরাফাতের তীর্থযাত্রীদের তাঁবু দিয়ে সাহায্য করেছে।

কোম্পানি ‘সমন্বয় কাউন্সিলের সদস্য মোহাম্মদ সাদ আল-কুরাসি বলেন, পুরুষ ও নারী রক্ষিবাহিনী তীর্থযাত্রীদের রক্ষা করবে এবং সারা দিন ও রাতগুলোতে তাদের সম্পত্তি রক্ষা করবে।চ

তিনি আরো বলেন, ঘাতক বা চুরির বিরুদ্ধে তীর্থযাত্রীদের তাঁবু দেখার জন্য ১০০০ জনের বেশি নজরদারি ক্যামেরা স্থাপন করা হবে।

হজ্জ ও ওমরা মন্ত্রণালয় হজ্বের তীর্থযাত্রীদের গাইড এবং মক্কায় তাদের বাসস্থান তাদের পরিবহন করতে, গ্র্যান্ড মসজিদ চারপাশে কেন্দ্রীয় এলাকায় ছয় কেন্দ্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

কেন্দ্রের সুপারভাইজার নাসির বিন ওয়াদিয়ান আল-কুরাসি বলেন, পুরনো এবং অক্ষম স্থানগুলিতে তাদের থাকার জায়গাগুলিতে গাড়ি চালাচ্ছে।

তিনি বলেন, সমস্ত কেন্দ্রীয় এলাকায় বিতরণ করা হয় এবং প্রতিদিন আট ঘণ্টা বদলির মাধ্যমে ২৪ ঘণ্টা কাজ করে।

কুরাসী বলেন, ১৫০ টিরও বেশি ভাল প্রশিক্ষিত এবং উচ্চ যোগ্যতাসম্পন্ন সৌদি যুবক এবং মহিলাদের এই কেন্দ্রগুলিতে কাজ করছে, যা তীর্থযাত্রীদের সঙ্গে সহজে যোগাযোগ করার জন্য অনেক ভাষায় তাত্ক্ষণিক বৈদ্যুতিক ব্যাখ্যা পরিসেবা রয়েছে।

তিনি বলেন, প্রতিটি তীর্থযাত্রা নাম, জাতীয়তা, বয়স, উত্তরাধিকার এবং বাসস্থান সহ ব্যক্তিগত তথ্য ধারণকারী একটি ব্রেসলেট পরা হবে।

তিনি বলেন, “তারা তাদের বাসস্থানে পৌঁছানোর আগে হারিয়ে যাওয়া তীর্থযাত্রীদের কেন্দ্রস্থলে পৌছাতে ১০ মিনিটেরও বেশি সময়ে লাগবে না”।

এই নিবন্ধটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল সংবাদমাধ্যম সৌদি গেজেট

আপনি এই ওয়েবসাইটের আরো আকর্ষণীয় খবর বা ভিডিও দেখতে চাইলে ক্লিক করুন এখানে সৌদি গেজেট হোম 


তথ্য ছড়িয়ে দিন